যাত্রীসেবার মান বৃদ্ধির জন্য ডাবল লাইন নির্মাণ করার উদ্যোগঃ রেলমন্ত্রী

প্রকাশিত: ৭:২৩ পিএম, ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০২১
  • শেয়ার করুন

এখন পর্যন্ত ডাবল লাইন নির্মাণ করতে না পারার কারণে রেলের যাত্রীরা কাঙ্খিত সেবা পাচ্ছেন না বলে মনে করেন রেলপথ মন্ত্রী মো. নূরুল ইসলাম সুজন।

তিনি বলেন, ‘রেলওয়ে নিরাপত্তার সঙ্গে এবং শিডিউল রক্ষা করে সময়মত চালানোর জন্য ডাবল লাইন নির্মাণ করা জরুরী। একটি লাইনের ওপর ট্রেন চলায় গতি বাড়ানো সম্ভব হচ্ছে না ফলে যাত্রীদের কাঙ্খিত সেবাও দেয়া যাচ্ছে না। যাত্রীসেবার মান বৃদ্ধি করার জন্য সরকার বিভিন্ন কর্মসূচী গ্রহণ করেছে। বিভিন্ন রুটে ডাবল লাইন নির্মাণ করার উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। স্টেশন সমূহ সংস্কার ও আধুনিকায়ন করা হচ্ছে। প্ল্যাটফরমের উচ্চতা বাড়ানো হচ্ছে।’

বৃহস্পতিবার রেলভবনে বাংলাদেশ রেলওয়ে এবং ওয়াটার এইডের মধ্যে রেলওয়ে স্টেশন সংলগ্ন স্থানে আধুনিক পাবলিক টয়লেট নির্মাণ/সংস্কার সহ ওয়াশ ব্যবস্থাপনার উন্নয়ন এবং পারস্পরিক শিখন কর্মসূচীর উদ্বোধন শেষে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে নূরুল ইসলাম বলেন, ‘ট্রেনের ভিতরসহ টয়লেট সমূহ পরিষ্কারের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। যাত্রীসেবার অংশ হিসেবে আজ (বৃহস্পতিবার) ওয়াটার এইড বাংলাদেশের সঙ্গে পাবালিক টয়লেট নির্মাণ ও সংস্কার করার উদ্দেশ্যে এই যৌথ চুক্তি করা হলো। আশা করা যাচ্ছে এইগুলো থেকে শিক্ষা নিয়ে এক বছরের মধ্যে বাংলাদেশের ৫০টি স্টেশনের পাবলিক টয়লেটকে আধুনিকায়ন ও উন্নত করা সম্ভব হবে।’

অনুষ্ঠানের মাধ্যমে কমলাপুর ও বিমান বন্দর রেলস্টেশনে তিনটি পাবলিক টয়লেট নির্মাণ ও সংস্কার করার কাজের উদ্বোধন করা হয়। এই পাবলিক টয়লেটের ব্যবস্থাপনার সফল মডেল যাত্রী সেবার মান উন্নয়ন এবং পারস্পারিক শিখন কর্মসূচি বাংলাদেশ রেলওয়ে এবং ওয়াটারএইড বাংলাদেশ ভবিষ্যতে একযোগে কাজ করবে বলে মন্ত্রী আশা প্রকাশ করেন।