সংখ্যালঘুদের জন্য সংসদে ৬০টি সংরক্ষিত আসন চায় হিন্দু মহাজোট

প্রকাশিত: ৬:১৮ পিএম, নভেম্বর ৫, ২০২১
  • শেয়ার করুন

হিন্দুদের দেশ ত্যাগ মানে বাংলাদেশ থেকে ভারতে চলে যাওয়ার প্রবণতা কখনো বন্ধ হয়নি৷ যাওয়ার হার কখনো কমেছে, কখনো বেড়েছে৷ কিছু গবেষণা ও বহু পরিসংখ্যান আছে৷

নতুন খবর হচ্ছে, সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের প্রতিনিধিত্ব নিশ্চিত করতে জাতীয় সংসদে ৬০টি সংরক্ষিত আসন ও পৃথক নির্বাচন ব্যবস্থার দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ জাতীয় হিন্দু মহাজোট।

শুক্রবার (৫ নভেম্বর) ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে (ডিআরইউ) জোটের পক্ষ থেকে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে নেতারা এ দাবি জানান।

বক্তারা বলেন, স্বাধীনতার প্রাক্কালে দেশে ২২ শতাংশ হিন্দু থাকলেও বর্তমানে তা সরকারি হিসাবে ১১.৮ শতাংশে নেমে এসেছে। হিন্দু ধর্ম নিয়ে প্রতিনিয়ত নানা কটূক্তি ও বিদ্বেষ ছড়ানো হচ্ছে; জবাব দিতে গেলে আইসিটি অ্যাক্টে গ্রেফতার করে জেলে পাঠানো হচ্ছে। কুমিল্লা, হাজীগঞ্জ, নোয়াখালী, রংপুরসহ সাম্প্রতিককালের ঘটনার প্রতিবাদ জানাতে গিয়ে ১৭ জন হিন্দু সম্প্রদায়ের মানুষ ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে গ্রেফতার হয়ে জেল হাজতে আছে। হিন্দু ধর্ম নিয়ে প্রতিনিয়ত কটূক্তি করলেও আজ পর্যন্ত হিন্দু ধর্ম অবমাননার অভিযোগে কোনও মামলা হয়নি, কাউকে গ্রেফতার করা হয়নি। অতীতের সকল ঘটনাতেই সরকার অপরাধীদের গ্রেফতার ও বিচার করতে ব্যর্থ হয়েছে। ফলে অপরাধীরা অপরাধ করতে আরও উৎসাহিত হচ্ছে।’

তারা বলেন, ‘বাংলাদেশ একটি সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির দেশ। হিন্দু ও মুসলিমের মধ্যে প্রীতির বন্ধন বিরাজমান। গুটি কয়েক স্বার্থান্বেষী রাজনৈতিক ব্যক্তি ছাড়া দেশের বেশিরভাগ মানুষ অসাম্প্রদায়িক। কিন্তু এই গুটি কয়েক দুষ্ট মানসিকতার রাজনীতিকরাই বিভিন্ন সময়ে ধর্মকে ঢাল হিসেবে ব্যবহার করে বারবার সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের ওপর হামলা চালাচ্ছে। এতে করে হিন্দু সম্প্রদায়ই শুধু বারবার নির্যাতিত হচ্ছে না; বিশ্বে দেশের ভাবমূর্তিও ভূলুণ্ঠিত হচ্ছে। সে কারণে দেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করতে এবং দুষ্ট রাজনীতিকদের হাত থেকে হিন্দু সম্প্রদায়কে রক্ষা করতে এবং সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের প্রতিনিধিত্ব নিশ্চিত করতে জাতীয় সংসদে সংরক্ষিত আসন ও পৃথক নির্বাচনব্যবস্থা এবং একটি সংখ্যালঘু মন্ত্রণালয় প্রতিষ্ঠা দরকার।