অফিসে রূপান্তর করা হচ্ছে সংসদের উত্তর প্লাজা, হচ্ছে অফিস-কার পার্কিং

প্রকাশিত: ৭:৩৭ পিএম, এপ্রিল ১৫, ২০২১
  • শেয়ার করুন

প্রকল্পের আওতায় অফিসে রূপান্তর করা হচ্ছে বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ ভবনের উত্তর প্লাজা। এছাড়া বিশাল এলাকাজুড়ে কার পার্কিং ও বিভিন্ন প্রবেশ পথে অভ্যর্থনা কক্ষসহ সেন্ট্রি পোস্ট নির্মাণ করা হবে।

এছাড়া সংসদ ভবন এলাকায় ছাদ থেকে পানি পড়া সমস্যা সমাধানের জন্য উত্তর প্লাজার সব ব্রিক ও মার্বেল প্রতিস্থাপনসহ আনুষঙ্গিক কাজ করা হবে। এছাড়া মানিক মিয়া এভিনিউয়ে সংসদ সদস্য ভবনের জন্য প্রি-ইঞ্জিনিয়ার্ড স্টিল স্ট্রাকচারের কার পার্কিং শেড নির্মাণ করা হবে।

‘বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ ভবনের উত্তর প্লাজাকে অফিসে রূপান্তরসহ আনুসাঙ্গিক কাজ’ শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় এমন উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। এতে মোট ব্যয় করা হবে ৪৯ কোটি টাকা। মার্চ ২০২১ থেকে জুন ২০২২ মেয়াদে প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে গণপূর্ত অধিদপ্তর।

প্রকল্পের মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ ভবনের উত্তর প্লাজার নিচে সুপরিসর জায়গাকে অফিসে রূপান্তরের মাধ্যমে সংসদ সচিবালয়ের অফিস স্পেস বৃদ্ধি করা। সংসদ সচিবালয়ের কার্যক্রমে গতিশীলতা ও সংসদ সদস্য ভবনের ব্যবহার উপযোগিতা বৃদ্ধি করা।

প্রকল্পের প্রস্তাবনা পরিকল্পনা কমিশনে পাঠিয়েছে গণপূর্ত অধিদপ্তর। প্রকল্পের ওপর প্রকল্প মূল্যায়ন কমিটির (পিইসি) সভা অনুষ্ঠিত হবে। এর পরেই চূড়ান্ত করা হবে প্রকল্পটি।

পরিকল্পনা কমিশনের ভৌত অবকাঠামো বিভাগের উপপ্রধান (ভৌত পরিকল্পনা, পানি সরবরাহ ও গৃহায়ণ উইং-১) দেবোত্তম সান্যাল বাংলানিউজকে বলেন, ‘বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ ভবনের উত্তর প্লাজাকে অফিসে রূপান্তরসহ আনুসাঙ্গিক কাজ’ প্রকল্পের প্রস্তাবনা পাঠিয়েছে গণপূর্ত অধিদপ্তর। এর পরে আমরা পিইসি সভা করবো। আমাদের কিছু নিজস্ব ফাইন্ডিংসও আছে। এসবের জবাব পাওয়ার পরেই পরিকল্পনামন্ত্রীর কাছে ডিপিপি (উন্নয়ন প্রকল্প প্রস্তাবনা) পাঠানো হবে।

১৯৮৪ সালে ৪২৭ জন সদস্যসহ ২টি শাখায় কার্যক্রম শুরু করে বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ সচিবালয়। বর্তমানে সেখানে ৭টি শাখায় ১ হাজার ৩২১ জন কর্মকর্তা কাজ করছেন। ফলে অফিস বড় করার প্রয়োজনীয়তা দেখা দিয়েছে। সংসদ সচিবালয় কমিশনের ৩১তম সভায় চিফ হুইপ সংসদ ভবনের উত্তর প্লাজার নিচে সুপরিসর ৫২ হাজার বর্গফুট জায়গায় প্রয়োজনীয় রেনোভেশনের মাধ্যমে কর্পোরেট অফিসের আদলে অফিস স্পেস করার প্রস্তাব করেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও কমিশনের মাননীয় সদস্যগণ এ প্রস্তাবে একমত পোষণ করেন।

সে প্রেক্ষাপটে জাতীয় সংসদ ভবনের উত্তর প্লাজার প্রয়োজনীয় সংস্কার ও আধুনিকায়নের মাধ্যমে অফিস স্পেসের রূপান্তরকরণসহ জাতীয় সংসদ ভবনের বিভিন্ন প্রবেশ গেটে অভ্যর্থনা কক্ষসহ সেন্ট্রি পোস্ট নির্মাণ, সংসদ সদস্য ভবন নং ২ , ৩ ও ৪ এর কার পার্কিং শেড নির্মাণ, সংসদ সদস্য ভবন -৪ , ৫ ও ৬ এর ফার্নিচার সরবরাহ কাজ ও উত্তর প্লাজার নিচে সংসদ ভবনের বিভিন্ন শাখায় অফিস কক্ষের বৈদ্যুতিক আধুনিকায়ন কাজসমূহ অন্তর্ভুক্ত করে প্রকল্পটি প্রস্তাব করা হয়েছে।